posnews.xyz

ভবিষ্যতের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় ১০টি ব্যবসা

প্রজুক্তি উন্নত হচ্ছে, বদলে যাচ্ছে মানুষের চাহিদা। আরবের সেই তেল কোম্পানিকে ছাড়িয়ে স্থান দখল করে নিয়েছে টেক কোম্পানিগুলো। অ্যাপেল এখন ২ ট্রলিয়ন ডলারের কোম্পানি। ভবিষ্যতে কোন কোম্পানি কেমন করবে, আপনার ব্যবসা কিরকম হওয়া উচিৎ তা বোঝা উচিত। আসুন জেনে নেই ভবিষ্যতের সবচেয়ে সম্ভাবনাময় ১০ টি ব্যবসা/ইন্ডাস্ট্রি সম্পর্কে। 

১। Internet of Things (IoT): আগে ইন্টারনেটের ব্যবহার ছিল সীমিত। মানুষ বিনোদনের জন্য, এরপর গেমস এর জন্য ইন্টারনেট ব্যবহার করত। সময়ের পরিবর্তনে মানুষ এখন ব্যবসা বাণিজ্যসহ সব কিছুতেই ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। এখন কাউকে আর আলাদা করে বলতে হয় না যে, আমি ইন্টারনেটে আছি, বরং তাকে সবসময়ই ইন্টারনেটে থাকতে হয়। ওয়াশিইং মেশিন থেকে শুরু করে বাড়ির নিরাপত্তার কাজে আমরা ইন্টারনেট ব্যবহার করি। সফটওয়্যার, শিল্পকারখানা, গার্মেন্টস, মার্কেট সবজায়গায়ই Internet of Things (IoT) কে পাওয়া যায়। 

২। আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সঃ গুগল, ফেসবুকসহ বেশীরভাগ যোগাযোগ মাধ্যম আমাদের পছন্দ সম্পর্কে জানে এবং সেই অনুযায়ী বিভিন্ন কন্টেন্ট সাজেস্ট করে। অ্যামাজনে ঢুকলে সে আপনাকে আপনার পছন্দের পণ্য সামনে এনে দেয় গুগুল বা অন্যান্য সাইট থেকে ডাটা কালেক্ট করে। এই পুরো বিষয়ের সাথে মানুষ কোনভাবেই জড়িত থাকে না। সবই হয় আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স দিয়ে। এটা মুলত মানুষের ব্রেনের মতই কাজ করে। তবে প্রোগ্রাম নির্ভর। এটা অনেক সময় নিজেই নিজেকে প্রগাম করে গাইড করতে পারে। এ আই খুব লাভবান ব্যবসা হতে যাচ্ছে ভবিষ্যতে। এই ইন্ডাস্ট্রিটি রাজনীতি, ব্যবসা, ডাক্তারি, ওকালতিসহ প্রায় সকল ক্ষেত্রেই পরিবর্তন ঘটাতে সক্ষম। 

৩। সাইবার সিকিউরিটিঃ আগের দুইটা থেকে বোঝাই যায় যে, ইন্টারনেট কতটা ছড়িয়ে পড়বে সারা পৃথিবী জুড়ে। আর সেখান থেকে এটাও বোঝা যায় যে, এক দল মানুষ  অন্যকে ঠকাতে সাইবার এটাক করবে। আপনার ব্যাংক একাউন্ট থেকে শুরু করে আপনার বাড়ি বা অফিসের সিকিউরিটি ক্যামেরা সব কিছুর তথ্যই ইন্টারনেটে আছে। তাই সাইবার সিকিউরিটি ঠেকানর ব্যবসা অনেক লাভবান হতে যাচ্ছে কেননা সবাইকেই তাদের নিজের ডাটার সিকিউরিটি নিশ্চিত করতে হবে। 

৪। জিনমিকসঃ আজ থেকে ১৫ বছর আগে আমেরিকা একটা প্রজেক্ট নেয় যেটা মুলত মানুষের জীনের মত হুবুহু জীন বানাতে সক্ষম হয়। এতে খরচ হয় প্রায় ৩০০ কোটি ডলার। তবে এখন মাত্র ১০০০ ডলারেই জীনের সিকোয়েন্স  করা সক্ষম। বর্তমানে এটা খুব দামী একটা ইন্ডাস্ট্রি বা ব্যবসা এবং বিল গেটস, গুগল অনেক বেশী পরিমাণে এই খাতে ইনভেস্ট করছে। এতে করে মানুষের সম্পূর্ণ দেহ সম্পর্কে বোঝা যাবে এবং চিকিৎসা ব্যবস্থা আরো উন্নত হবে। 

৫। ড্রোনঃ এটাও খুব দ্রুত বর্ধনশীল ব্যবসা। এখন শুধুমাত্র মিলিটারি কাজের জন্য ড্রোন কে সিমাবদ্ধ রাখা হয় না বরং অ্যামাজনের ডেলিভারির জন্যও ড্রোন ব্যবহৃত হচ্ছে। বিভিন্ন ছবি তোলা বা ভিডিও করার জন্য এটা সচারচরই ব্যবহার করা হচ্ছে। সবথেকে বড় কথা হল ড্রোনের ব্যবহারকে এখন আর কোন শব্দে সীমাবদ্ধ রাখা যায় না। 

৬। রবোটিক্সঃ রোবোটের ব্যবহার এখন আর ইন্টারটেইনমেন্ট এর মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই বরং রোবট সোফিয়া এখন সৌদির নাগরিক। এখন এই অবস্থা বিরাজ করছে যে, রোবোটকে আমাদের বন্ধু মনে হয়, কো-ওয়ার্কার মনে হয়। এই সেক্টরটাও বর্ধনশীল ব্যবসা বলে বিবেচিত। 

৭। ভার্চুয়াল রিয়ালিটিঃ একটা পরিবেশ যেটা কিনা আপনার ল্যাপটপে ছিল সেটা এখন আপনি অনুভব করতে পারেন শুধু এই ভার্চুয়াল রিয়ালিটির মাধ্যমে। পর্দায় আগুন জ্বললে আপ্নিও তাপ অনুভব করেন। এটা মিলিটারি সেক্টরে ট্রেনিং এর জন্য বহুল ব্যবহৃত হচ্ছে। এই ব্যবসা সেক্টরটি খুব লাভবান হবে ভবিষ্যতে। 

৮। ন্যানো টেকনোলোজিঃ আমাদের হাড্ডির সেলগুল কিভাবে দ্রুত বাড়ানো যায় (চাহিদা অনুযায়ী) কিংবা ক্যান্সার চিকিৎসা কিভাবে অনেক বেশী ফাস্ট করা যায় এই জন্য ন্যানো টেকনোলোজি অনেক বেশি আবেদনময় একটা সেক্টর। এই সেক্টরট মূলত একটা দিকে এগচ্ছে, তা হল- অসীম উন্নতি। 

৯। রিনিউয়াবল এনার্জিঃ আপনার কোন কিছুই কাজ করবে না যদি আপনার এনার্জি না থাকে। বিদ্যুৎ না থাকলে ইন্টারনেট অফ থিংগস বলেন কিংবা ভার্চুয়াল রিয়ালিটি বলেন কিংবা ন্যানো টেকনোলোজি কিছুই কাজ করবে না। আর এই বিদ্যুতের সোর্স ধীরে ধীরে কমে যাচ্ছে। তাই তো মানুষ এখন আগের চেয়ে অনেক বেশী রিনিউয়াবল এনারজির দিকে এগোচ্ছে। সূর্যের শক্তিকে অনেক বেশী পরিমাণে ব্যবহার করার জন্য অনেক বড় বড় প্রোজেক্ট নিচ্ছে। এই সেক্টরে অনেক বেশী ব্যবসা হবে বলে আশা করা যায়। 

১০। শেয়ারিং ইকোনমিঃ আগের মত এখন আর মানুষ একাই সব কিছু পেতে চায় না। শেয়ারিং টা অনেক বেশী করে। উবারেও দেখবেন শেয়ারিং অপশন থাকে। একটা বাড়ি বা গাড়িও ইজিলি শেয়ার করা যায়। ভবিষ্যতে এই শেয়ারিং ইকোনমি অনেক বেশী ব্যবসা সফল হবে বলে আশা করা যায়। 

আরো পড়ুনঃ ২০২২ সালে বাংলাদেশের জন্য ৫টি বিজনেজ আইডিয়া
ব্যবসা করতে চাচ্ছেন? এই ৪টি ব্যবসা আজই শুরু করতে পারেন
এই Digital Skill গুলো আপনার থাকা উচিৎ

Leave a Reply

Positivity
%d bloggers like this: